কোন বৌ’দিকে প’টাতে হলে জিজ্ঞাস করুন এই কথাগু’লি, সে আপনার ও’পর দু’র্বল হয়ে উঠবে…

0
30

প্রত্যে,ক মে’য়েই বিয়ের পর শুরু করতে চায় এক নতুন অ,ধ্যায়। কারণ সব মে’য়ের মনেই বিয়ে জুরে থাকে অনেক স্বপ্ন, আশা ও আকা,ঙ্কা। এটা আলাদা ব্যাপার যে সে যেটা চায় সেটা সবসময় পেয়ে ওঠা হয় না।

বিয়ের পর ঝুট ঝ্যা,মেলা তো লেগেই থাকে। ঝ’গড়া, অশা,ন্তি সব সংসারেই চলে। সব কিছু নিয়েই চলতে হয় একটি মে’য়েকে। তার ও’পর যদি তার স্বা,মি তাকে সেই,রকম সময় না দেয় তাহলে তো হয়েই গেলো।

এই,রকম সময় একটি মে’য়ের নিজেকে খুবই একা মনে হয়। তার মনে হয় যে এই পৃথি,বীতে তার থেকে দুর্ভা,গ্যবতী ম’হিলা আর কেউ নেই। বিভিন্ন প্রশ্ন উকি মারে তাদের একলা মনে। আর তাদে,র এই প্রশ্ন গুলো আ,সাটাও স্বাভাবিকয়।

তবে এটাও জেনে নেওয়া দরকার যে কির,কম প্রশ্ন করলে তাদের মনের ও’পর প্রভাব পড়তে পারে বা কোন প্রশ্ন গুলো তাদের মনে দুঃখ দিতে পারে। একটি সদ্য বিবা’হিত ম’হিলা,কে ক,ক্ষনই এই প্রশ্ন গু’লি করা উচিৎ না।

জেনে নিন সেগু’লি কি কি অনে,কদিন তো হল বিয়ে করেছো, বাচ্ছা কবে নিচ্ছ ? এই প্রশ্ন,টিও কিন্তু তাদের মনে আ’ঘাত পৌঁছা,নর জন্য যথেষ্ট। এতে মটেই খুশি হয় না একটা সদ্য বিবা’হিত মে’য়ে। তার,পর এমন কিছু মুহু,রত আসে যখন কেউ জিগেস করে বিয়ের পর অ,নুভুতি কেমন ?

মে’য়েটি কি বলবে কি না বলবে তা না ভেবে পেয়ে বোকার মত তা,কিয়ে থাকে। তাছাড়া সে করবে,টাই বা কি। তারপর যদি কেউ বলে যে অনেক বদলে গেছ তুমি। আরে এটাই তো স্বাভা,বিক ব্যাপার।

বিয়ের পর একটা নয়, একটি মে’য়েকে তি,নটি সংসারের ভার নিতে হয়। ফলে বাড়ে দায়িত্ব বোধ। তো সেই ক্ষেত্রে বদলে যাও,য়াটাই তো স্বাভা,বিক ব্যা,পার। তাই না ? অনে,কেই বিয়ের পর স্বা’মীর পদবি নিজের ,নামের সাথে যোগ করে না।

তখনই অনেকে তাদের প্রশ্ন করে থাকে যে নাম পরিব,র্তন করছও না কেন ? কেন ভাই বিয়ের পর যে নাম পরি,বর্তন করতে হবে এটা কোন বইতে লেখা আছে ?

এসব প্রশ্ন করার কি আদৌ কোন দরকার আছে। তার,পর আর একটি প্রশ্ন খুব বেশি শোনা যায় আজ,কাল। নিজে,দের ফ্ল্যাট নিচ্ছ না কেন ? সব সংসা,রেই এখন খরচা বেশি।

টাকা জমা,নোটা আজ,কাল হয়ে উঠে,ছে দুষ্কর। কখনো কখনো মনে হয় জি,জ্ঞাসা করি দাদা টাকা’টা কি আপনি দিয়ে যাবেন।