ইফতারে বেগুনি আর জিলাপি আমার ভীষণ প্রিয় : ফারিয়া শাহরিন

0
42

তারকাদের ধর্ম পালন নিয়ে তাদের ভক্তদের অনেক কৌতূহল। মুসলিম তারকারাও রোজা রাখেন। রোজা নিয়ে শুটিং করেন, ব্যস্ত থাকেন নানা রকম ধর্মীয় প্রার্থনায়। আর সবার মতো তাদেরও আছে রোজা রাখার অনেক মজার স্মৃতি।

লাক্স তারকা ফারিয়া শাহরিন দীর্ঘদিন ধরে কাজ করছেন শোবিজে। সর্বশেষ ‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’ নাটকে অন্তরা চরিত্রে অভিনয় করে তুমুল আলোচিত হয়েছেন।

এ তারকা আলাপে আলাপে জানালেন রোজা নিয়ে তার দর্শন ও উপলব্ধির কথা। নস্টালজিক হয়ে মজার ছলে বললেন শৈশবে রোজা রাখার অনেক গল্প।

: প্রথম কবে রোজা রেখেছিলেন?
ফারিয়া : অনেক ছোটবেলা থেকেই আমি রোজা রাখার অভ্যাস করেছি৷ খুব সম্ভবত প্রথম রোজা রাখি ক্লাশ ওয়ানে থাকতে৷

: শৈশবের রোজা নিয়ে অনেকের মধ্যেই একটা ভালো লাগা, নস্টালজিয়া কাজ করে৷ আপনার কি তেমন কোনো স্মৃতি মনে পড়ে?

ফারিয়া : অনেক স্মৃতিই আছে। তার ভিড়ে একটা কথা মনে পড়ে খুব৷ একবার রোজা রেখে আজানের আগেই শরবত খেয়ে ফেলেছিলাম৷ বাইরে থেকে দৌড়ে এসেছি। মনেই নেই যে রোজা। শরবত সাজানো দেখে খেয়ে ফেলেছি৷ পরে বুঝতে পেরে লজ্জা পেলাম।

: শৈশবের রোজার সঙ্গে এখনকার রোজায় কি পার্থক্য পান?
ফারিয়া : অনেক অনেক। শৈশবের রোজা ছিলো ছেলেমানুষী উত্তেজনায় ভরা। অনেকটা বলা যায় রোজার মহাত্ম না বোঝেই রোজা রাখতাম। এখন তো মুসলিম হিসেবে ফরজ পালন করতে রোজা রাখি৷ রোজা রাখার মানে বুঝি৷

: রোজায় আমাদের দেশে ইফতারের অনেক ঐতিহ্যবাহী খাবার আছে। আবার সেহরীতে অনেকেই দুধ কলা দিয়ে ভাত খাওয়া পছন্দ করে৷ আপনার প্রিয় মেন্যু কি?

ফারিয়া : সবরকম ভাজাপোড়া আমার পছন্দ৷ তারমধ্যে বেগুনী আর জিলাপি আমার ভিষণ প্রিয়৷ সেহরীতে বাসায় যা রান্না হয় তাই খাই৷

জাগো নিউজ : একজন রোজাদার হিসেবে আপনার উপলব্ধি কি?
ফারিয়া : এই একটা মাস মনের মধ্যে একটা প্রশান্তি কাজ করে৷ এবারের রোজায় দোয়া করছি আল্লাহ যেন করোনা থেকে আমাদের রক্ষা করেন৷ এই মহামারিকে মোকাবিলার শক্তি দেন৷ আল্লাহর কাছে ক্ষমা চাই৷