ড্রেন নির্মাণে পাথরের পরিবর্তে ব্যবহার হচ্ছে ইট

0
36

ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলার সহস্রাইল বাজারে ৬০ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মিত ৫০০ মিটার ড্রেন নির্মাণে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে।

পাথরের পরিবর্তে পুরোনো ইটের ব্যবহার, বেস ঢালাইয়ে সোলিংয়ের নিচে বালু না দেয়া, বৃষ্টির মধ্যেই কাজ চালিয়ে যাওয়াসহ বিভিন্ন অভিযোগ উঠেছে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, উপজেলার শেখর ইউনিয়নের সহস্রাইল বাজারের জলাবদ্ধতা দূরীকরণে ৫০০ মিটার দৈর্ঘ্যের ওই ড্রেনের নির্মাণকাজ করছে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মেসার্স কেএম এন্টারপ্রাইজ। এতে মোট ব্যয় হবে ৬০ লাখ টাকা। সড়ক ও জনপথ অধিদফতর কাজটি বাস্তবায়ন করছে।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, ড্রেন নির্মাণে অনিয়ম হচ্ছে। ড্রেনটি নির্মাণে সম্পূর্ণ পাথরের ঢালাই হওয়ার কথা থাকলেও ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান নিম্নমানের ইটের ঢালাই দেয়ার চেষ্টা করে। পরে ব্যবসায়ীরা বাধা দিলে কাজ বন্ধ করে দেয়া হয়।

সহস্রাইল বাজার বণিক সমিতির সভাপতি মো. চুন্নু বিশ্বাস বলেন, শুরু থেকেই নিম্নমানের ইট দিয়ে কাজ শুরু করে ওই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। পরে বাধা দিয়ে কাজ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, ড্রেনের গ্রাউন্ড ঢালাইয়ের সোলিংয়ের নিচে একেবারেই বালু দেয়া হচ্ছে না। নিম্নমানের পুরোনো ইট ব্যবহার করা হচ্ছে।বৃষ্টির মধ্যেও কাজ চালিয়ে যাচ্ছে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান।

এ ব্যাপারে বক্তব্য নিতে মেসার্স কেএম এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী মো. সিলটনের মোবাইলে কল করলে তিনি ফোনটি রিসিভ করে রং নম্বর বলে কেটে দেন। তবে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের সংশ্লিষ্ট কাজের সাইডে দায়িত্বরত মাসুক জানান, ওই মোবাইল নম্বরটা সঠিক। আমি এরচেয়ে বেশি কিছু বলতে পারব না।

সড়ক ও জনপথ অধিদফতরের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী মোহাম্মদ আবুল হোসেন বলেন, কাজ নিম্নমানের হওয়ার সুযোগ নেই। ড্রেন নির্মাণে পাথরের পরিবর্তে ইট ব্যবহার করাটা অনিয়ম।