ভোরে স’হবাসের যত উপকারিতা

0
114

বিশেষজ্ঞদের মতে ভোর বেলায় স’হবাসের ফলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃ’দ্ধি ছাড়াও অনেক উপকার পাওয়া যায়।রাত বা অন্য সময়ের চেয়ে ভোরে মিলনের ফলে হৃদরোগে আ’ক্রা’ন্ত হওয়ার সম্ভাবনা অনেকটাই কমে যায় বলে জানান বিশেষজ্ঞরা।

এরই সাথে সাথে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও অনেক বেড়ে যায়।এসময় নারী এবং পুরুষ উভয়েরই যৌ’’ন হরমোন গু’লির মাত্রা থাকে তু’’ঙ্গে।তবে এসময় পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকতে হয়।তাই ঘু’মাতে যাওয়ার সময় পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন হওয়া খুবই জরুরি।ভোরবেলা মিলন শরীরে অ্যান্টিবডি গঠন করতে সাহায্য করে, শরীরের র’ক্ত সঞ্চালন সঠিক থাকে। এছাড়া সকালের মিলনের ফলে আর্থ্রাইটিস ও মাইগ্রে’নের মত রোগ কম হয়।স’ঙ্গী বা স’ঙ্গিনীর স’ঙ্গে

ভালবাসার একা’ন্ত সময় কা’টাতে চাইছেন? এগিয়ে যান। কারণ নিয়মিত যৌ’’নমিলন বা স’হবাস মা’নসিক শান্তির স’ঙ্গেই আপনার ক্লান্তি কাটিয়ে দেবে, ক্যালরি কমাবে, আরামের ঘু’মও উপহার দেবে। এক কথায় শরীরকে করে তুলবে সুস্থ, ঝরঝরে। নিয়মিত সহ’বাসের দশটি উপকারিতা- ১) স’প্তাহে দু`দিন যৌ’ নমিলন পুরুষদের হার্ট অ্যাটাকের সম্ভাবনা বহুলাংশে কমিয়ে দেয়। ২) যৌ’’নমিলন ব্যাথা উপশমে অব্যর্থ। যৌ’’নমিলনের সময়

অর্গাসমের ফলে অক্সিটোসিন হরমোন ক্ষরণের মাত্রা পাঁচ গু’ণ বৃ’দ্ধি পায়। এর স’ঙ্গেই শরীর এন্ডোরফিনস ক্ষরণ করে যা ব্যাথা কমিয়ে দিতে গু’রুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেয়।৩) নিয়মিত যৌ’’নমিলন শরীরে IgA অ্যান্টিবডির সংখ্যা বাড়িয়ে তোলে। যা রোগ প্রতিরোধে অ’পরিহার্য্য। ৪) সহ’বাস ক্লান্তি দূর করে। মানসিক শান্তি তৈরি করে। ৫) যৌ’’নমিলনের পরবর্তী ঘু’ম আরাম ও শান্তির হয়। যা সার্বিক ভাবে শারীরিক সুস্থতা বৃ’দ্ধি করে। ৬) প্রত্যেকবার

যৌ’’নমিলনের ফলে অন্তত পক্ষে ৮০ ক্যালরি করে ক্ষয় হয়। ফলে ওজন ঝরানোর জন্য মোক্ষম প’দ্ধতি সহ’বাস। ৭) যৌ’’নমিলন চলাকালীন ডিহাইড্রোএপিএন্ড্রোস্টেরন নামের একটি হরমোন ক্ষরিত হয়। এই হরমোন রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃ’দ্ধির স’ঙ্গে স’ঙ্গে বিভিন্ন কোষ-কলাকে মেরামত করে। ফলে আয়ু বৃ’দ্ধি পায়। ৮) সহ’বাসের সময় হৃদস্পন্দনের হার বৃ’দ্ধি পায়। ফলে শরীরের বিভিন্ন অ’ঙ্গে ও কোষে র’ক্ত সঞ্চালনের মাত্রা বৃ’দ্ধি পায়।

৯) সহ’বাস চলাকালীন অতিরিক্ত টেস্টোস্টেরনের ফলে যৌ’’নমিলন তৃ’প্তি দায়ক হয় এটা সবারই জানা। কিন্তু অনেকেরই জানা নেই টেস্টোটেরন একই স’ঙ্গে হাড় মজবুত করে, কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণে রাখে, হার্টের সুস্থতা বজায় রাখে। মহিলাদের ক্ষেত্রে এই সময় অতিরিক্ত ইস্ট্রোজেন ক্ষরণ হার্টের সুস্থতা বজায় রাখে, এবং গন্ধ নিয়ন্ত্রণ করে। ১০) স’প্তাহে অন্তত তিনবার যৌ’’ন মিলন বাহ্যিকভাবে আপনার বয়স দশ বছর কমিয়ে দিতে পারে।

সহ’বাসের সময় শরীরে অক্সিটোসিন, এন্ডোরফিন জাতীয় মলিকিউলস ক্ষরণ বৃ’দ্ধি পায়। ক্ষ’তিগ্রস্থ ত্বক কোষ গু’লিকে মেরামত করতে পারে এই মলিকিউলসগু’লি। এছাড়া এই সময় যৌ’’ন মিলন চলাকালীন যে গ্রোথ হরমোন ক্ষরিত হয় তা চামড়ার কুঞ্চন প্রতিরোধ করে। র’ক্ত সঞ্চালন বৃ’দ্ধি করে। ত্বকের ঔজ্বল্য বাড়ায়। আরো জানুন বিধবা নারীদের বিয়ে করতে চান কেন বেশির ভাগ সৌদি যুবক সৌদি আরবের বেশিরভাগ যুবকরা বিধবাদের বিয়ে করতে আগ্রহী।

এক সমীক্ষায় জানা গেছে, ৬৭ দশমিক ২ শতাংশ যুবকই বিয়ে করতে চান বিধবাদের।সম্প্রতি জেদ্দাভিত্তিক দাতব্য সংস্থা ‘সোসাইটি ফর ম্যারেজ অ্যান্ড ফ্যামিলি কাউন্সেলিং’ প্রকাশিত এক জরিপের ফল থেকে এ তথ্য জানা গেছে।এতে আরো জানা যায়, বেশি বয়সীদের বিয়েতে আগ্রহী সৌদি যুবকরা।সৌদি যুবকদের ৭৭ দশমিক ৩ শতাংশ বিচ্ছেদ হওয়া নারীদের বিয়ে করতে চায়। জরিপে অংশ নেয়া যুবকদের ৭৪ দশমিক ৬ শতাংশ

বেশি বয়সী অবিবাহিত নারীদের বিয়ে করতে আগ্রহী।জরিপের ফল প্রস’ঙ্গে দাতব্য সংস্থাটির জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা আবদুল্লাহ বিন মোহা’ম্ম’দ মাতবৌলি বলেন, বর্তমানে বিচ্ছেদ হওয়া বা বিধবা নারীদের সম্বন্ধে সমাজে কিছু ভ্রান্ত ধারণা প্রচলিত আছে। যা আরবের শিক্ষার স’ঙ্গে সাংঘর্ষিক। এদিকে ১০ কোটি টাকা নিয়ে স্বামী খুঁজছেন নিঃস’’ঙ্গ নারীরা নিঃস’’ঙ্গতার অ’বসান ঘটাতে কোটিপতি সৌদি নারীরা বিয়ের জন্য স্বামী খুঁজছেন। বিয়ের ক্ষেত্রে বিদেশি স্বামী
এবং তাদের সন্তানদের সৌদি নাগরিকত্ব পাবার আইন সং’স্কার হওয়ার পরই তারা এ অনুস’ন্ধানে নেমেছেন। খবর- হাফিংটন পোস্ট।এদেরই একজন ৪০ বছরের হেসা।তিনি বিয়ের ইচ্ছে ব্যক্ত করে বলেন, তার বাবা মা’রা যাওয়ার পর উ’ত্তরাধিকার সূত্রে প্রচুর ধনসম্পদের মালিক। তাকে সম্মান করবেন এমনই এক স্বামী খুঁজছেন তিনি।২০১২ সালে সৌদি সাময়িকী রোয়া এক প্রতিবেদন বের হয়। এতে বলা হয়, এক নারী ভাল স্বামীর খোঁজে ৫০ লাখ সৌদি রিয়াল নিয়ে অ’পেক্ষা করছেন।
যিনি বিবাহিত জীবন ও দায়িত্বকে গু’রুত্বের স’ঙ্গে বিবেচনা করবেন।২০১৪ সালে আমিরাতের একটি নিউজ সাইট জানায়, অনেক সৌদি কোটিপতি নারী টুইটারে বিয়ের আগ্রহের কথা জানান। এমন একটি পোস্টে সৌদি এক নারী জানান, তিনি তা’লাকপ্রা’’প্তা ও নিঃসন্তান। তিনি এমন একজন স্বামী খুঁজছেন যিনি তাকে ভালবাসবেন।
উত্তরাধিকার সূত্রে তিনি একশ মিলিয়ন রিয়ালের মালিক। ৩৯ বছর বয়সী এই নারী তার পারিবারিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করছেন।এর আগে ২০০৭ সালে এক সৌদি নারী স্বামী খুঁজছিলেন। চাহিদা বলতে তিনি স্বামীর ব্যক্তিত্বকেই প্রাধান্য দেয়ার কথা বলেন। তার সম্পদের পরিমাণ ছিল ৭০ লাখ রিয়াল।