ফরিদপুরে ১৫ গ্রামে ঈদ সোমবার

0
42

ফরিদপুরের বোয়ালমারী ও আলফাডাঙ্গার ১৫টি গ্রামে আগাম ঈদ উদযাপিত হবে। সোমবার (২ মে) সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর সঙ্গে মিল রেখে তারা ঈদ উদযাপন করবেন।

স্থানীয় সূত্র জানায়, বোয়ালমারী উপজেলার শেখর ও রুপাপাত ইউনিয়নের ১৩টি গ্রামের মানুষ মধ্যপ্রাচ্যের সঙ্গে মিল রেখে একদিন আগে রমজানে রোজা পালন শুরু করেন। আলফাডাঙ্গা সদর ইউনিয়নের শুকুরহাটা ও ইছাপাশা গ্রামের মানুষও একই সঙ্গে রোজা পালন ও ঈদ উদযাপন করেন। একদিন আগে যারা রোজা ও ঈদ উৎসব উদযাপন করেন তারা সবাই চট্টগ্রামের মির্জাখিল শরীফের মুরিদ।

বোয়ালমারী উপজেলার ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ও শেখর ইউনিয়নের বাসিন্দা প্রান্ত সিদ্দিকী জাগো নিউজকে বলেন, চট্টগ্রামের মির্জাখিল শরীফ ও সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের সঙ্গে মিল রেখে বোয়ালমারী উপজেলার শেখর ও রুপাপাত ইউনিয়নের কাটাগড়, সহস্রাইল, দরি সহস্রাইল, মাইটকোমড়া, রাখালতলি গঙ্গানন্দপুরসহ ১৩ গ্রামের আংশিক মানুষ ঈদ উদযাপন করবেন।

আলফাডাঙ্গা উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি এনায়েত হোসেন জাগো নিউজকে জানান, সদর ইউনিয়নের শুকুরহাটা, ইছাপাশাসহ দুই গ্রামের আংশিক লোকজন একদিন আগে রোজা ও দুই ঈদ উদযাপন করেন। তারা কাল ঈদ উদযাপন করবেন

বোয়ালমারী উপজেলার শেখর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ইস্রাফিল মোল্যা জাগো নিউজকে বলেন, রূপাপাত ও শেখর ইউনিয়নের ১৩ গ্রামের মানুষ সোমবার ঈদুল ফিতর উদযাপন করবেন। দীর্ঘদিন ধরে গ্রামগুলোর আংশিক মানুষ সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের সঙ্গে মিল রেখে রোজা ও দুই ঈদ উদযাপন করে আসছেন।