August 8, 2022

পি’টিয়ে শিক্ষার্থীর হাত ভা’ঙলেন প্রধান শিক্ষক, ত’দন্ত কমিটি গঠন

বৃহস্পতিবার (১৬ জুন) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে নাটোরের সিংড়ায় পিটিয়ে শিক্ষার্থীর হাত ভাঙার এ ঘটনা ঘটে।সিফামনি কৃষ্ণনগর গ্রামের রেজাউল করিম ও তাছলিমা বেগম দম্পতির মেয়ে। এ ঘটনায় সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা সাজ্জাদ হোসাইনকে প্রধান করে দুই সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর।

জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার (১৬ জুন) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে স্কুল ভবনের দ্বিতীয় তলায় বই-খাতা রেখে নিচে খেলাধুলা করতে থাকে কয়েকজন শিক্ষার্থী। এ সময় প্রধান শিক্ষক এস এম ফরহাদুল আলম লাঠি দিয়ে সবাইকে এলোপাতাড়ি পেটাতে থাকে। একপর্যায়ে তৃতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী সিফামনির হাতে প্রচণ্ড লাগে। পরে পরিবারের লোকজন নাটোরে হাড়-জোড়ারোগ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক মো. তরিকুল ইসলামের কাছে নিয়ে গেলে পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে জানা যায় সিফামনির হাত ভেঙে গেছে।

ভুক্তভোগী সিফামনির মা তাছলিমা বেগম বলেন, ‘আমার মেয়েকে অন্যায়ভাবে মারা হয়েছে। শিক্ষকদের কাছে পাঠাই ভবিষ্যৎ গড়ার জন্য, কিন্তু শিক্ষকরাই ভবিষ্যৎ নষ্ট করে দিচ্ছে। এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চাই।’

এ বিষয়ে স্থানীয়রা জানান, কিছুদিন আগে রুহুল ইসলাম নামের তৃতীয় শ্রেণির এক শিক্ষার্থীকে পিটিয়ে মাথায় আঘাত করেছেন প্রধান শিক্ষক ফরহাদুল আলম। এ ছাড়া গত জানুয়ারি মাসে স্কুলের ফল ঘোষণা অনুষ্ঠানে ডেকোরেটর ভাড়া না দিয়ে ডেকোরেটর মালিককে মারধর করার অভিযোগও রয়েছে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক ফরহাদুল আলমের মোবাইল ফোনে কল দিলে তিনি জানান, তদন্ত কমিটির সদস্যরা তার স্কুলে এসেছেন। পরে কথা বলবেন বলে কল কেটে দেন। পরে কয়েকবার কল দিলেও রিসিভ করেননি।উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আলী আশরাফ জানান, এ ঘটনায় দুই সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত প্রতিবেদন পেলে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.